প্রচ্ছদ / এক্সক্লুসিভ খবর / ৪০ হাজার বছর আগে মারা গেছে ঘোড়াটি : দেহ অক্ষত
home-ad-620-x-90

৪০ হাজার বছর আগে মারা গেছে ঘোড়াটি : দেহ অক্ষত

অনলাইন ডেস্ক :অন্তত ৪০ হাজার বছর আগে মারা যাওয়া একটি অশ্বশাবকের দেহ অক্ষত উদ্ধার করেছে সাইবেরিয়ার বিজ্ঞানীরা। তারা বলছেন, যথাযথভাবে হিমায়িত করার কারণে এত বছর ধরে ঘোড়ার বাচ্চার দেহটি অক্ষত রয়েছে। এতটাই অক্ষত যে, সেটির পশম, কেশর, লেজ ও শরীরের ভেতরের অনেক অঙ্গ ভালো অবস্থায় আছে এখনো।

দ্য সাইবেরিয়ান টাইমস পত্রিকা জানিয়েছে, রাশিয়ার সাইবেররিয়া অঞ্চলের ইয়াকুতিয়া অঞ্চলে পাওয়া গেছে ঘোড়ার বাচ্চার দেহটি। রাশিয়া ও জাপানের বিজ্ঞানী ও প্রত্মতাত্তিকদের একটি দল অনুসন্ধান চালাতে গিয়ে এটি খুঁজে পেয়েছে। ভূগর্ভস্থ একটি প্রাচীণ সংরক্ষণাগারে পাওয়া গেছে সেটি।

রাশিয়ার সাইবেররিয়া অঞ্চলটি এমনিতেই শীতপ্রধান। কিছু অঞ্চলে এত বেশি বরফ পড়ে যে কোন বস্তু খোলা স্থানে পড়ে থাকলেও সহজে নষ্ট হয়না। তবে এই ঘোড়ার বাচ্চাটি ভূগর্ভে সংরক্ষণ করার কারণে এত বছর টিকে ছিলো বলে ধারণ বিজ্ঞানীদের।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, ঘোড়ার বাচ্চাটি মারা যাওয়ার সময় বয়স ছিলো তিন মাস বা তার সামান্য কম-বেশি। সেটির শরীরে কোন ক্ষত বা আঘাতের চিহ্ন নেই, তাই টিক কী কারণে সেটি মারা গেছে তা বুঝতে পারছেন না তারা। রুশ বিজ্ঞানী ও ইয়াকুতস্ক নগরীর ম্যামথ মিউজিয়ামের প্রধান সিমিয়ন গ্রিগরিয়েভ বলেন, ‘ এত নিখুঁতভাবে সংরক্ষিত প্রাগঐতিহাসিক যুগের অল্প বয়সী ঘোড়ার মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনা বিশ্বে এটিই প্রথম।’

তিনি বলেন, যে স্থানে মৃত ঘোড়ার বাচ্চাটি পাওয়া গেছে সেখানকার মাটির নমুন নিয়েছি আমরা। এর মাধ্যমে ওই সময় পরিবেশ সম্পর্কে ধারণা পাব। ঘোড়ার বাচ্চাটির দেহ এখনো গাঢ় ধূসর রঙের পশমে মোড়ানো, কেশর ও লেজও একই রঙের এবং এখনো রয়েছে বহাল তবিয়তে।

web-ad

আপনার মতামত দিন

আপনার ই-মেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না, এই চিহিৃত ঘরটি অবশ্যই পূরণ করতে হবে *

*