প্রচ্ছদ / লীড নিউজ / ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক বন্ধ, ভাংচুর, চালকদের লাইসেন্স চেকিং
home-ad-620-x-90

ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক বন্ধ, ভাংচুর, চালকদের লাইসেন্স চেকিং

স্টাফ রিপোর্টার : সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও রাজধানীতে সড়ক দূর্ঘটনায় দুই শিক্ষার্থী নিহতের প্রতিবাদে সাভারে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ইউনিফর্ম পড়ে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে। ভাংচুর করেছে ৫/৬টি যানবাহন। যাদের ড্রাইভিং লাইসেন্স নেই তাদের নাজেহাল করেছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে বিভিন্ন পয়েন্টে শিক্ষার্থীরা এসে জড়ো হতে থাকে। তারা ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সাভার বাসস্ট্যান্ড থেকে মিছিল নিয়ে রেডিও কলোনী বাসস্ট্যানে মহাসড়ক অবরোধ করে। বৃষ্টি উপেক্ষা করে তারা মহাসড়কে বসে পড়ে বিভিন্ন শ্লোগান দিয়ে উল্লাস করতে থাকে।

পরে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠারে শিক্ষার্থীরা সড়কের উভয় পাশে আটকা পড়া যানবাহনের চালকদের ড্রাইভিং লাইসেন্স চেকিং করে। যাদের লাইসেন্স নেই কিংবা লাইসেন্সের মেয়াদ শেষ হয়েগেছে তাদের নাজেহাল করে গাড়ি আটকে রাখে। অনেকের গাড়ির চাবি নিয়ে যেতেও দেখা গেছে।
ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাইদুর রহমান, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) প্রনব কুমার ঘোষ, সাভার পৌরসভার মেয়র হাজী আব্দুর গণিসহ পুলিশ কর্মকর্তারা বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের শান্তনা দিয়ে অবরোধ তুলে নেয়ার আহব্বান জানান, কিন্তু শিক্ষার্থীরা তাদের আহব্বানে সাড়া দেয়নি।
ঘটনাস্থলে উপস্থিত সাভার পৌর আওয়ামীলীগ সভাপতি ও পৌরসভার মেয়র হাজী আব্দুর গণি বলেন, আমি জনপ্রতিনিধি হিসেবে শিক্ষার্থীদের দাবাদাওয়ার বিষয়ে একমত পোষন করছি। এবং তিনি আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের পক্ষে থাকার কথাও বলেন।

এছাড়া শিক্ষার্থীরা জাহাঙ্গীরনগর বিশ^বিদ্যালয়ের ডেইরি গেটে, সাভার বাজার বাসস্ট্যান্ড, সাভার থানা স্ট্যান্ডে এনাম মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করেছে। বাইশমাইল এলাকায় গণবিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও বিক্ষোভ দেখিয়েছে।

ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাইদুর রহমান বলেন, বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের দাবীগুলো নিয়ে আলোচনা করে পূরনের আশ্বাস দেয়া হয়েছে। তবে বিভিন্ন যানবাহনে যাতে শিক্ষার্থীদের রাস্তা থেকে উঠায় এবং হাফ ভাড়া নেই, সেই বিষয়ে পরিবহন মালিকদের সাথে কথা বলে ব্যবস্থা করারও কথা বলেন তিনি।

এদিকে অবরোধের ফলে মহাসড়কের দুই পাশে শত শত যানবাহন আটকা পরেছে। ফলে ভোগান্তীতে পড়েছে সাধারন যাত্রীরা। অনেকেই পায়ে হেঁটে তাদের গন্তব্য স্থলে যেতে দেখা গেছে।
তবে সাভার ট্রাফিক পুলিশের ইন্সপেক্টর (টিআই) আবুল হোসেন বলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার চেষ্টা চলছে।

বিকাল পৌনে ৫টা থেকে মহাসড়কে কিছু কিছু যানবাহন চলতে দেখা গেছে।

web-ad

আপনার মতামত দিন

আপনার ই-মেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না, এই চিহিৃত ঘরটি অবশ্যই পূরণ করতে হবে *

*