প্রচ্ছদ / গণমাধ্যম / সাংবাদিকের কাছে চাঁদাদাবীর ঘটনায় এসআই কবীরসহ ৪জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা নথিভূক্ত
home-ad-620-x-90

সাংবাদিকের কাছে চাঁদাদাবীর ঘটনায় এসআই কবীরসহ ৪জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা নথিভূক্ত

স্টাফ রিপোর্টার  :  সাভারে সাংবাদিককে মারধর ও চাঁদা দাবীর অভিযোগে আদালতের নিদের্শে এসআই কবীরসহ চার জনের বিরুদ্ধে রোববার সাভার মডেল থানায় মামলা নথিভুক্ত হয়েছে। মামলা নং-৪৪।

এরআগে গত সোমবার চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে (সিআর নং-৫১/২০১৭) মামলাটি দায়ের করেন সাভার প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক ও একাত্তর টেলিভিশনের প্রতিনিধি মিঠুন সরকার।

মামলায় স্বরবর্ণ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার অভিজিৎ রায় ওরফে অজয়, সাভার মডেল থানার এসআই কবীর হোসেন, ডগরমোড়া এলাকার বিজয় চন্দ্র রায় ও আশুলিয়ার কুড়গাঁও এলাকার রফিকুল ইসলামকে আসামী করা হয়।

অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোস্তাফিজুর রহমান মামলাটি আমলে নিয়ে এফআইআর হিসেবে নথিভুক্ত করার জন্য সাভার মডেল থানার ওসিকে নির্দেশ দিলে আদালতে নিদের্শে পুলিশ মামলাটি নথিভূক্ত করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সাভার মডেল থানার পরিদর্শক আমিনুল ইসলাম জানান, আজই (রোববার) মামলাটি নথিভুক্ত হয়েছে। তদন্ত করে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

মামলার বাদী মিঠুন সরকার জানান, সাভারের শাহীবাগ এলাকায় অবস্থিত স্বরবর্ণ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার অজয় রায় কালিনগর এলাকার আনোয়ার হোসেনের মেয়ে আখি আক্তারকে (১৭) গতবছরের ৯ডিসেম্বর সকালে নায়িকা বানানোর প্রলোভন দিয়ে তার অফিসে নেয়ার পর থেকেই নিখোঁজ হয়।
পরে বিভিন্ন স্থানে পরিবারের পক্ষ থেকে খোঁজাখুজি করে তার কোন হদিন না পেয়ে সাভার মডেল থানায় একটি সাধারন ডাইরী (নং-১০১৬) করেন আখির মা খাদিজা বেগম। ডাইরীর তদন্তভার দেয়া হয় সাভার মডেল থানার এসআই কবীর হোসেনকে।

মিঠুন আরো জানায়, এনিয়ে সংবাদ প্রকাশ করায় ক্ষিপ্ত হয়ে আসামীরা গত রোববার ওয়াপদা রোডের অফিসে এসে আমাকে অকর্থভাষায় গালাগাল, মারধর ও অফিসে ভাংচুর করে। এছাড়া তারা এক লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে। টাকা না দিলে প্রাননাশেরও হুমকি দেয়।

web-ad

আপনার মতামত দিন

আপনার ই-মেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না, এই চিহিৃত ঘরটি অবশ্যই পূরণ করতে হবে *

*