প্রচ্ছদ / গণমাধ্যম / ক্ষমা চেয়ে পার পেলেন সাভার থানার ওসি
home-ad-620-x-90

ক্ষমা চেয়ে পার পেলেন সাভার থানার ওসি

স্টাফ রিপোর্টার  :  আদেশ অমান্য করে মামলা না নেওয়ার ঘটনায় আদালতে হাজির হয়ে ক্ষমা চেয়ে শাস্তি থেকে রেহাই পেয়েছেন সাভার মডেল থানার ওসি এসএম কামরুজ্জামান।

রোববার তিনি ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য বিচারিক হাকিম মো. মোস্তফিজুর রহমানের আদালতে হাজির হয়ে ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চান।

বিজ্ঞ চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের দেয়া কপি

সাভার উপজেলা সেটেলমেন্ট কার্যালয়ের কয়েকজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে স্থানীয় এক সাংবাদিকের করা অভিযোগ মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করার নির্দেশ দেওয়ার পরও তা না মানায় গত বৃহস্পতিবার এ পুলিশ কর্মকর্তাকে তলব করেন বিচারক। স্বশরীরে আদালতে হাজির হয়ে কারণ দর্শাতে বলা হয় ওসি কামরুজ্জামানকে।

সাভার প্রেসক্লাবের দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক এবং স্থানীয় দৈনিক ফুলকির স্টাফ রিপোর্টার মো. ইমদাদুল হক গত ৬ ডিসেম্বর এ আদালতেই মামলার আরজি জানান।

অভিযোগে বলা হয়, পেশাগত দায়িত্বপালনকালে উপজেলা সেটেলমেন্ট অফিসের কর্মকর্তারা শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে ল্যাপটপ, মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় গত ৬ ডিসেম্বর আদালতের স্মরণাপন্ন হয়ে সেটেলমেন্ট অফিসের সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার আমির হোসেন (৫০), উপ-সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার ও রাজস্ব কর্মকর্তা আবু তৈয়ব মজুমদার (৪৫), খারিজ সহকারী টিএম জাহাঙ্গীর আলম (৩৫)সহ অজ্ঞাতনামা ৩/৪জনকে আসামী করে একটি পিটিশন (সিআর মামলা নং- ৩৮৮(ক)/২০১৬ইং) দায়ের করেন

ইমদাদুল বলেন, ওইদিনই সাভার মডেল থানায় একটি অভিযোগ দিলে পুলিশ মামলা নথিভুক্ত না করে আমাকে ঘোরাতে থাকে। তাই কোনো উপায় না পেয়ে আদালতে পিটিশন মামলা দায়ের করি।

বাদীর আইনজীবী মো. আনিচুর রহমান রুলু জানান, আদালত অভিযোগটি আমলে নিয়ে সাভার মডেল থানার ওসিকে তা এফআইআর হিসেবে নথিভুক্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেয়া হয়। কিন্তু ওসি  তা না করায় তাকে তলবের আদেশ আসে।

রোববার বিচারক তার আদেশে বলেন, ওই পুলিশ কর্মকর্তা বাদীর আর্জি এজাহার হিসাবে গ্রহণ না করে অসদাচারণ করেছেন এবং অদক্ষতা দেখিয়েছেন। সাভারের ওসিকে দায়িত্ব পালনে ‘আরও যতœশীল’ হওয়ার নির্দেশ দেন তিনি।

আরও পড়ুন :

 

 

web-ad

আপনার মতামত দিন

আপনার ই-মেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না, এই চিহিৃত ঘরটি অবশ্যই পূরণ করতে হবে *

*