প্রচ্ছদ / লীড নিউজ / সাভারে স্বর্ণের দোকানে সুড়ঙ্গ কেটে দেড়শ’ ভরি স্বর্ণের গহনা লুট, আটক ২
home-ad-620-x-90
এই জুতার দোকানের ভিতর দিয়ে দেয়াল ভেঙ্গে সুড়ঙ্গ তৈরী করে দূবৃত্তরা স্বর্ণের দোকানে প্রবেশ করে

সাভারে স্বর্ণের দোকানে সুড়ঙ্গ কেটে দেড়শ’ ভরি স্বর্ণের গহনা লুট, আটক ২

স্টাফ রিপোর্টার  :  ঢাকার সাভারে একটি সুপার মার্কেটের স্বর্ণের দোকানে সুড়ক কেটে দেড় শ’ ভরি তৈরী বিভিন্ন গহনা, নগদ টাকাসহ প্রায় কোটি টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে।

সাভার বাজার বাসস্ট্যান্ডের চৌরুঙ্গী সুপার মাকের্টের নীচ তলায় অবস্থিত ‘দি মোহনা জুয়েলার্স’ -এ শুক্রবার দিবাগত গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটেছে।

সাভার মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুস সালাম জানান, চৌরুঙ্গী সুপার মার্কেটের নীচ তলায় ‘বাঁধন সু’ জুতার দোকানের তালা ভেঙ্গে ডাকাতরা ভিতরে প্রবেশ করে। পরে মাঝের দেয়ালে সুড়ঙ্গ কেটে স্বর্নের দোকানে প্রবেশ করে সমস্ত মালামাল নিয়ে যায়। তবে জুতার দোকানে নতুন তালা লাগিয়ে যায় দূবৃত্তরা।

এঘটনার সাথে মাকের্টের নিরাপত্তা কর্মীরা জড়িত রয়েছে ধারনা করছেন পুলিশ। তবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ নিরাপত্তা কর্মী হান্নান ও নিরাপত্তা সুপারভাইজার আমির হোসেনকে আটক করেছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করলেই আসল তথ্য বেরিয়ে আসবে বলেন এসআই।

দি মোহনা জুয়েলার্সের ব্যবস্থাপক চিত্তরঞ্চন সরকার জানান, পাশের জুতার দোকান থেকে এক জন মানুষ ঢুকতে পারে এমন সাইজের সুড়ঙ্গ তৈরী করে স্বর্ণের দোকানে প্রবেশ করেছে। তাদের প্রায় দেড় শ’ ভরি স্বর্নের গহণা ও নগদ টাকাসহ প্রায় কোটি টাকার মাল লুট হয়েছে বলে তিনি দাবী করেছেন।

তার ধারনা, মাকের্টের নিরাপত্তা কর্মী আর জুতার দোকানের কোন কর্মচারী এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকতে পারে। কারন জুতার দোকানে নতুন তালা লাগানো ছিল।

তবে ‘বাধন সু’ জুতার দোকানের মালিক সত্ত বাবু জানায়, তার দোকানের সার্টারের তালা কেটে দূবৃত্তরা ভিতরে প্রবেশ করে। পরে দেয়ার ভেঙ্গে সুড়ঙ্গ তৈরী করে স্বর্নের দোকানে ঢুকে লুট করে নিয়ে যায়। তবে তার জুতার দোকানের কিছু খোয়া যায়নি বলে তিনি জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, দূবৃত্তরা এক সার্টারের তালা কেটে ভিতরে ঢুকে পরে যাওয়ার সময় নতুন তালা লাগিয়ে রেখে যায়। অন্য সার্টারের তালা খুলে আমরা ভিতরে ঢুকেছি।

আটকের আগে চৌরুঙ্গী সুপার মার্কেটের নিরাপত্তা সুপারভাইজার আমির হোসেন জানান, তাদের নিরাপত্তাকর্মী হিরালাল মধ্য রাতের দিকে মার্কেটের মুল গেইট খুলে রেখে চাবী আমাকে বুঝিয়ে দেয়। ভোর ৬টায় তার দায়িত্বহস্তান্তরের সময় থাকলেও সে না বলেও ভোর রাত ৪টার দিকে চলে যায়। বিষয়টি মার্কেট কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

গতকাল সকাল ৯টার দিকে মাকেটের ব্যবসায়ীরা দোকান খোলার পর ঘটনাটি ধরা পরে। তার ধারনা মধ্য রাত থেকে ভোর পর্যন্ত কোন এক সময় এ ঘটনাটি ঘটেছে।

তখন রাতের পালার নিরাপত্তাকর্মী হিরালালকে মুঠফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তার ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

সাভার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এসএম কামরুজ্জামান বলেন, এটা ডাকাতি নয়, চুরিও নয়, এটা তাদের কোন কারসাজি থাকতে পারে। খুব বেশী হলে ১০/১২ভরি স্বর্ণালংকার খোয়া গেছে। তারপরও আমরা তদন্ত করে দেখছি।

এদিকে চৌরুঙ্গী সুপার মার্কেটটিতে রাতে নিরাপত্তায় ছয় জন দায়িত্ব পালন করেছিলো। এদের মধ্যে দুই জনকে পুলিশ আটক করেছে। অন্য চারজন হিরালাল, মঞ্জু, শাহজাহান ও কাশেম পলাতক রয়েছে। এঘটনায় ওই মার্কেটের ব্যবসায়ীদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

web-ad

আপনার মতামত দিন

আপনার ই-মেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না, এই চিহিৃত ঘরটি অবশ্যই পূরণ করতে হবে *

*