প্রচ্ছদ / খেলাধুলা / নিউজিল্যান্ডের কাছে তৃতীয় ওয়ানডে হেরে হোয়াইটওয়াশ হল বাংলাদেশ
home-ad-620-x-90

নিউজিল্যান্ডের কাছে তৃতীয় ওয়ানডে হেরে হোয়াইটওয়াশ হল বাংলাদেশ

অনলাইন ডেস্ক  :  নিল ব্রুমের সঙ্গে কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের ১৭৯ রানের জুটির সুবাদে সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৮ উইকেটের জয় পেল নিউজিল্যান্ড। এর ফলে ৩-০ ব্যবধানে সিরিজ হেরে স্বাগতিকদের কাছে হোয়াইওয়াশ হল মাশরাফির দল।

নেলসনের স্যাক্সটন ওভালেটসে জিতে আগে ব্যাট করে ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ২৩৬ রান করতে সক্ষম হয় সফরকারী বাংলাদেশ।  ২৩৭ রানের সহজ টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ২ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌছে যায় স্বাগতিকরা। নিউজিল্যান্ডের পক্ষে দুর্দান্ত ব্যাটিং করেছেন অনডাউনে নামা দুই ব্যাটসম্যান নেইল ব্রুম ও অধিনায়ক কেইন উইলিয়ামসন। ব্রুম ৯৭ রান করে মুস্তাফিজের শিকার হলেও অধিনায়ক উইলিয়ামসন টাইগারদের বিপক্ষে জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছেন। শেষপর্যন্ত তিনি ৯৫ রানে থেকেছেন অপরাজিত।

অবশ্য, নিজের প্রথম ওভারেই মুস্তাফিজ সাজঘরে ফিরিয়েছিলেন কিউই ওপেনার টম ল্যাথামকে। এক ওভারে পরে আরেক ওপেনার মার্টিন গাপটিলও স্বেচ্ছা অবসর নিয়ে মাঠ ছেড়েছিলেন হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পেয়ে। ইনিংসের চতুর্থ ওভারে ইমরুল প্রথম স্লিপে ব্রুমের ক্যাচটা মিস না করলে ভিন্ন রকমও হতে পারত ম্যাচের চিত্র। কিন্তু একবার জীবন পেয়ে বাংলাদেশের বোলারদের নাজেহাল করে ছেড়েছেন ব্রুম। কিউই অধিনায়ক কেইন উইলিয়ামসনকে সঙ্গে নিয়ে তৃতীয় উইকেটে তিনি গড়েছিলেন ১৭৯ রানের জুটি। ৩৫তম ওভারে এই জুটিটিও ভেঙেছেন মুস্তাফিজ। শতক থেকে মাত্র তিন রান দূরে থাকার সময় আউট হয়ে গেছেন ব্রুম। কিন্তু এই উইকেটটিও স্বস্তি ফেরাতে পারেনি বাংলাদেশ শিবিরে। কারণ ততক্ষণে জয় প্রায় নিশ্চিতই হয়ে গিয়েছিল নিউজিল্যান্ডের। বাকি কাজটুকু অনায়াসেই সেরে ফেলেছেন উইলিয়ামসন ও জেমস নিশাম। ৯৫ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে দলকে জিতিয়েই মাঠ ছেড়েছেন উইলিয়ামসন। নিশাম অপরাজিত ছিলেন ২৮ রান করে। ৫২ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে গেছে স্বাগতিকরা।
বাংলাদেশের পক্ষে ৯.২ ওভার বোলিং করে ৩২ রান দিয়ে নিয়েছেন দুটি উইকেট মুস্তাফিজ। আর কোনো বোলারই পাননি উইকেটের দেখা।

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে দারুণ শুরু করেছিল বাংলাদেশ। উদ্বোধনী জুটিতেই ১০২ রান জমা করেছিলেন তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েস।  কিন্তু দলীয় ১০২ রানের মাথায় সাজঘরে ফিরে যান ওপেনার ইমরুল। আউট হয়ে ফিরে যাওয়ার আগে ইমরুল ৬২ বলে ৪৪ রানের চমৎকার একটি ইনিংস খেলেন, যাতে পাঁচটি চার ও একটি ছক্কার মার ছিল। ইমরুল ফিরে যাওয়া অল্প কিছুক্ষণের মধ্যে আউট হয়ে যান সাব্বির রহমান। ২৫তম ওভারের পঞ্চম বলে দলীয় ১২৭ রানের মাথায় তিনি ১৯ রান করে সাজঘরে ফিরে যান।

এরপর মাহমুদউল্লাহ পিচে এসে অল্প কিছুক্ষণের মধ্যেই ফিরে যান। ২৭তম ওভারের তৃতীয় বলে মাত্র ৩ রান নিয়ে আউট হন তিনি। তাঁর এই আউট বাংলাদেশের ইনিংসে বড় একটা ধাক্কা লেগেছে। ৩১তম ওভারের প্রথম বলে ফিরে যান ওপেনার তামিমও। দলীয় ১৪১ রানের মাথায় ৫৯ রান করেন আউট হন। বল খরচ করেছেন ৮৮টি, যাতে চারের মার ছিল পাঁচটি।

৩৭তম ওভারের প্রথম বলে অলরাউন্ডার সাকিব ফিরে যান, তিনি ১৮ রান করে রানআউট হন। এই ওভারের পঞ্চম বলে আউট হন সৈকতও (১১)। তাই টানা ছয় উইকেট হারিয়ে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ। শেষ পর্যায়ে নুরুল হাসান সোহানের  ৩৯ বলে ৪৪ রানের লড়াকু ইনিংসে ভর করে বাংলাদেশের স্কোরবোর্ডে জমা হয়েছে ২৩৬ রান।

কিউই পেসার জেমস নিশাম ও ম্যাট হেনরি নিয়েছেন দু’টি করে উইকেট। একটি করে উইকেট নিয়েছেন টিম সাউদি, জিতেন প্যাটেল, কেন উইলিয়ামসন, জেমস নিশাম ও মিশেল স্যান্টনার।

৯৫ রানে অপরাজিত থাকা কিউই অধিনায়ক উইলিয়ামসন প্লেয়ার অব দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হয়েছেন।

web-ad

আপনার মতামত দিন

আপনার ই-মেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না, এই চিহিৃত ঘরটি অবশ্যই পূরণ করতে হবে *

*