প্রচ্ছদ / লীড নিউজ / সাভারে শিশুদের দিয়ে তৈরী করা হচ্ছে বিষাক্ত কয়েল
home-ad-620-x-90
সাভারে বিষাক্ত কেমিক্যাল দিয়ে শিশুরা তৈরী করছে মশার কয়েল

সাভারে শিশুদের দিয়ে তৈরী করা হচ্ছে বিষাক্ত কয়েল

স্টাফ রিপোর্টার  :  ঢাকার সাভারে প্রশাসনের চোখকে ফাঁকি দিয়ে গড়ে উঠেছে অনুমোদন বিহীন মশার কয়েল তৈরীর কারখানা।

শিশুদের দিয়ে তৈরী মাত্রারিক্ত বিষাক্ত ডি-এলেথ্রিন মিশিয়ে নিন্মমানের উৎপাদিত এইসব কয়েল স্বাস্থ্য ও পরিবেশের জন্য মারাতœক ক্ষতিকর হওয়ায় এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানিয়েছে কারখানাটির আশপাশের বাসিন্দারা।

সাভারের চাঁপাইন এলাকায় ‘ভাই ভাই মার্কেটিং এন্ড ডিষ্ট্রিবিউশন’ নামে কারখানাটিতে কাজ করছে ৮ থেকে ১২ বছরের বেশ কয়েকজন শিশু।

এ কারখানাটিতে বেশ কয়েকটি নামে কয়েল উৎপাদন করে বাজারজাত করছে। অথচ কোন অনুমোদনই নেই কারখানাটির। প্রতিটি প্যাকেটের মোড়কে ‘বিএসটিআই’ সিল ব্যবহার করলেও নেই বিএসটিআই এর কোন অনুমোদন।

শিশু শ্রমিকদের দিয়ে মাত্রারিক্ত বিষাক্ত ডি-এলেথ্রিন মিশিয়ে নিন্মমানের উৎপাদিত এইসব কয়েল স্বাস্থ্য ও পরিবেশের জন্য মারাতœক ক্ষতিকর বলে জানিয়েছে চিকিৎসকরা।

এলাকাবাসী জানায়, কোন সাইনবোর্ড ছাড়াই কারখানাটিতে বিষাক্ত ডি-এলেথ্রিন মিশিয়ে অতি গোপনে দিনে ও রাতে মশার কয়েল তৈরী করা হচ্ছে। উৎপাদিত মশার কয়েলে বিষাক্ত গন্ধে শ্বাস প্রশ্বাসে সমস্যা দেখা দিলে আশপাশের বাসিন্দাদের সন্দেহ হয়।

স্থানীয়দের অভিযোগের প্রেক্ষিতে সরজমিনে কারখানাটিতে গিয়ে দেখা যায়, ছোট ছোট শিশুরা কাজ করছে কারখানাটিতে।

কারখানায় গুরু এ্যাকশন, ম্যাক ফাইটার, পরিমা, দাদাগিরী, রয়েল কিং এছাড়াও লিজার্ড নামে একটি নামী কোম্পানীর মোড়ক নকল করে মশার কয়েল প্যাকেটজাত করা হচ্ছে।
তবে হরেক রকম নাম ও হরেক রকমের কোম্পানীর নাম মোড়কে ব্যবহার করলেও তৈরী হচ্ছে সব একই জায়গায় একই জিনিষ দিয়ে। আর প্রতিটি মোড়কে বিএসটিআই -এর সিল লাগানো রয়েছে।

অনুমোদনহীন মশার কয়েল তৈরীর কারখানাটির মালিকদের একজন নজরুল ইসলাম। তিনি দাবী করেন, খামার বাড়ী থেকে একটি অনুমোদন এনে কারখানাটি চালাচ্ছেন। তবে অনুমোদনের এমনকি বিএসটিআই -এর কোন কাগজ দেখাতে পারেননি কেউ। শিশুদের দিয়ে বিষাক্ত দ্রব্য মিশিয়ে কয়েল তৈরীর প্রসঙ্গে কোন কথাও বলতে রাজী হননি তিনি।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, কারখানাটিতে বৈদ্যুৎ ও গ্যাস সংযোগ অবৈধভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে সাভার উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু নাসের বেগ জানান, কারখানাটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

web-ad

আপনার মতামত দিন

আপনার ই-মেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না, এই চিহিৃত ঘরটি অবশ্যই পূরণ করতে হবে *

*