প্রচ্ছদ / জেলার খবর / সাক্ষীকে ফাঁসাতে গিয়ে আসামি গ্রেপ্তার
home-ad-620-x-90

সাক্ষীকে ফাঁসাতে গিয়ে আসামি গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক: আড়াইহাজারে হত্যা মামলার সাক্ষীকে পুলিশের সোর্সের সহযোগিতায় মাদক দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছে হত্যা মামলার অন্যতম আসামি ইজ্জত আলী।

বুধবার রাতে উপজেলার বিশনন্দী ইউনিয়নের শরীফপুর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানিয়েছে, ৩০ নভেম্বর বুধবার রাতে শরীফপুর এলাকার বদরুজ্জানের ছেলে ইজ্জত আলী থানা পুলিশের সোর্স খায়রুদ্দিনের সহযোগিতায় একই এলাকার খলিলের ছেলে আকাব্বর (৫৫) এর ঘরে ইয়াবা ট্যাবলেট আছে বলে থানা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ একাব্বরের ঘর থেকে ৭৫পিছ ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করে এবং আকাব্বরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় শরীফপুর এলাকার লোকজন পুলিশের উপর ক্ষুব্দ হয়ে ওঠে। পরে পুলিশ জানতে পারে মাদকের তথ্যদাতা ইজ্জত আলী আটক আকাব্বর এর চাচাতো ভাই মামুন হত্যা মামলার অন্যতম আসামি। মামলায় ইজ্জত আলীসহ তার ভাই মোস্তফা,শাহা আলম,আব্বাছ আলীসহ ২২/২৩জন আসামি। আকাব্বরসহ তার ছেলে ও মেয়ে মামুন হত্যার প্রত্যক্ষদর্শী সাক্ষী।

এ ঘটনা জানতে পেরে পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে ইজ্জত আলীকে গ্রেপ্তার করে। তবে পুলিশের সোর্স খায়রুদ্দিন পালিয়ে যায়।

জানা গেছে, ২০১০ সালে এলাকায় বিয়ের দাওয়াত খেতে যাওয়ার সময় এলাকার ওহেদ শরীফের ছেলে মামুনকে প্রকাশ্যে দিবালোকে কুপিয়ে হত্যা করে ইজ্জত আলীসহ সন্ত্রাসীরা। পরে মামুনের বাবা বাদী হয়ে আড়াইহাজার থানায় ইজ্জত আলীর চারভাই সহ সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

আকাব্বর জানায়, হত্যা মামলা উঠিয়ে না নেওয়ায় ও তাদের বিরুদ্ধে সাক্ষী দেওয়ায় এর আগেও তাকে র‌্যাব ও পুলিশ দিয়ে হয়রানি করেছিল এ সন্ত্রাসীরা।

আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাখাওয়াত হোসেন জানান, ইজ্জত আলী কৌশলে আকাব্বরের ঘরে মাদক রেখে পুলিশকে খবর দেয় বলে সে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে।

 

web-ad

আপনার মতামত দিন

আপনার ই-মেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না, এই চিহিৃত ঘরটি অবশ্যই পূরণ করতে হবে *

*